শনিবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ৯.২৮°সে
সর্বশেষ:
লড়াই করেও শেষপর্যন্ত কুমিল্লার কাছে হারে খুলনা খুলনায় ১কেজি ৭৫০ গ্রাম সোনার বারসহ ২ জনকে আটক রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি রহমত উল্যাহ সম্পাদক কবির হোসেন ভারতে ৩ বিমান বিধ্বস্ত আত্রাইয়ে চোরসহ গ্রেপ্তার ৪ হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পুতুল নাচ ১ লাখ টাকা বেতনে প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালে চাকরির সুযোগ ১২ দিন সংসার করে পেলেন ১০০ কোটি! রাজশাহীতে আ. লীগের জনসভার জন্য ভাড়ায় ৭ বিশেষ ট্রেন সুইডেনে কুরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে জাবিতে মানববন্ধন শাহরাখের ‘পাঠানে’ বাজিমাত, ২ দিনে আয় ২২০ কোটি ইরানে আজারবাইজানের দূতাবাসে হামলা, প্রধান নিরাপত্তারক্ষী নিহত
/

মাইজভান্ডার ওরশে দেশ-বিদেশের লক্ষ লক্ষ মানুষের ঢল

 

হায়দার আলী (স্টাফ রিপোর্টার) চট্টগ্রাম

“মাইজভাণ্ডারীয়া” ত্বরীকার প্রবর্তক গাউছুল আ’যম হযরত শাহসূফী মাওলানা সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (কঃ) আল হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল মাইজভাণ্ডারী ১১৭ তম বার্ষিক ওরশ শরীফ আজ ১০ মাঘ মহাসমারোহে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পবিত্র এ ওরশ উপলক্ষে দেশ-বিদেশের লাখো আশেক-ভক্তরা মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফে সমাগম হয়েছে।

২৪ জানুয়ারী (মঙ্গলবার) হযরত গাউসুল আযম সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী (কঃ) এর ১১৭ তম বার্ষিক ওরশ উপলক্ষে গতকাল সোমবার সকালে হযরত কেবলা’র রওজা মোবারকে গিলাফ চড়ানো হয়। উক্ত গিলাফ চড়ান গাউছিয়া আহমদীয়া মঞ্জিলের সাজ্জাদানশীন হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভান্ডারী (মঃ) এবং নায়েবে সাজ্জাদানশীন ও মোন্তাজেম সৈয়দ ইরফানুল হক মাইজভান্ডারী (মঃ)। মোনাজাত পরিচালনা করেন সাজ্জাদানশীন হযরত সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভান্ডারী (মঃ)।

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার মাইজভান্ডার দরবার শরীফের প্রাণ পুরুষ আধ্যাত্বিক উজ্জ্বল নক্ষত্র “মাইজভান্ডারীয়া” ত্বরীকার প্রতিষ্ঠাতা গাউছুল আ’যম হযরত শাহসূফী মাওলানা সৈয়দ আহমদ উল্লাহ আল-হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল মাইজভাণ্ডারী ক্বেবলা কা’বা কাদ্দাছাল্লাহু ছিররাহুল আজিজ এর ১১৭ তম ওরশ উপলক্ষে দেশ ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে লক্ষ লক্ষ আশেক- ভক্তরা মাইজভাণ্ডারে এসেছেন। ওরশ শরীফে অংশ নিতে বাংলাদেশ ছাড়াও মিয়ানমার, ভারত, ওমান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কাতার, সৌদি আরব, বাহরাইন, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, চায়না, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকেও অসংখ্য ভক্ত, অনুরক্ত ও আশেকান মাইজভান্ডার দরবার শরীফে এসেছেন। ভক্ত আশেকের পদচারণায় মুখরিত আজ মাইজভান্ডার দরবার শরীফ ও এর আশেপাশের এলাকা বিশাল এক জনসমুদ্রে পরিনত হয়েছে। উক্ত ওরশ শরীফে মিলাদ মাহফিল, জিকির, সেমা, মাইজভান্ডারী ও মারফতি গানের ধ্বনিতে পুরা এলাকা মুখিরিত। আঞ্জুমানে মোত্তাবেইনে গাউছে মাইজভান্ডারী শাহ এমদাদীয়া মঞ্জিলের সাজ্জাদানশীন হযরত শাহসূফী মাওলানা সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভান্ডারী (মঃজিঃআঃ) গাউছিয়া আহমদীয়া মঞ্জিল শাহী ময়দানে বিশ্ব মানবের কল্যাণ, শান্তি ও মুক্তি কামনা করে আজ রাত ১২ টা ১মিনিটে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করবেন।

গাউছুল আ’যম মাইজভান্ডারী হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (কঃ) এর ১১৭ তম ওরশ শরীফ উপলক্ষে বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেছে। ক্রোড়পত্রে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও গাউছিয়া আহমদীয়া মঞ্জিলের সাজ্জাদানশীন হযরত শাহসূফী সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভান্ডারী (মঃজিঃআঃ)’র বাণী প্রকাশ করেছে। ওরশ উপলক্ষে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলা প্রশাসন, থানা পুলিশের পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (কঃ) চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার মাইজভান্ডার গ্রামে ১৮২৬ খ্রীস্টাব্দে ১২৪৪ হিজরী ১১৮৮ বাংলা ১ মাঘ রোজ বুধবার জোহরের সময় জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি পিতৃকুল ও মাতৃকুল উভয়দিক দিয়ে বা বংশধারায় বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পবিত্র বংশধর। তিনি পীরেনাপীর দস্তগী মাহবুবে সোবাহানী কুতুবে রাব্বানী হযরত গাউছুল আ’যম শেখ সৈয়দ মহীউদ্দিন আবদুল কাদের জিলানী আল-হাসানী ওয়াল হোসাইনী কাদ্দাছাল্লাহু ছিররাহুল আজিজের মত মাদারজাদ অলী আল্লাহ ছিলেন। হযরতের ৪ বছর বয়সে গ্রাম্য মক্তবে শিক্ষা জীবন শুরু হয়।১২৬০ হিজরীতে তিনি উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য কলকাতা আলীয়া মাদ্রাসায় ভর্তি হন। তিনি ছাত্র জীবনে অত্যান্ত মেধাবী ছিলেন। তিনি প্রায় ৮ বছর এ মাদ্রাসায় অধ্যায়ন শেষে ১২৬৮ হিজরীতে কামিল পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। তিনি ধর্মীয়, শাস্ত্রীয় ও জাহেরী বিদ্যার প্রায় শাস্ত্রেই অসাধারণ বুৎপত্তি অর্জন করেন। তিনি ১২৬৯ হিজরীতে যশোর জেলা কাজী (বিচারক) পদে নিযুক্ত হন। তথায় ১ বছর অতি দক্ষতার সাথে বিচারিক কার্যাদি সমাধান করেন। সে কার্যক্রম হযরতের ভাল না লাগার জন্য ১২৭০ হিজরীতে কাজী পদ হতে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করে কলকাতা হযরত শাহসূফী মুন্সি বু-আলী (রহঃ) প্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসায় প্রধান শিক্ষক পদে নিযুক্ত হন। হযরত শেখ সৈয়দ আবু শাহমা মুহাম্মদ ছালেহ লাহোরী আল কাদেরী (রহঃ) ছিলেন হযরতের পীরে তরিকত। তাঁহার পীরে তরিকতের পীর ভাই হযরত শাহসূফী সৈয়দ দেলাওয়ার আলী (রহঃ)’র কাছ থেকে তিনি কুতুবিয়্যাৎ এর ফয়েজ লাভ করেন। হযরত গাউছুল আ’যম মাইজভান্ডারী (কঃ) ৪০ বছর বয়সে গাউছিয়তের সর্বোচ্চ মকামে অধিষ্ঠিত হন। তিনি সর্বত্র হুজুর ‘গাউছুল আযম’ হিসেবে পরিচিত লাভ করেন। তৎকালীন সময়ে তিনি সর্বসাধারণের মাঝে ‘ফকির মাওলানা সাহেব’, ‘হযরত কেবলা’, ‘হযরত কেবলায়ে আলম’, ‘হযরত সাহেব কেবলা’, হযরত কেবলাকাবা’, হযরত আক্বদাস গাউছুল আ’যম মাইজভান্ডারী’ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য নাস ও উপাধিতে প্রসিদ্ধি লাভ করেন। হযরতের পীরে তরিকতের নির্দেশে ১৮৫৭ সালে চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে তাহার নিজ গ্রাম মাইজভান্ডারে ফিরে আসেন।

হযরত গাউছুল আ’যম মাইজভান্ডারী (কঃ) এর দরবার থেকে অসংখ্য অলৌকিক কারামাত সমূহ প্রকাশ হওয়ার সাথে সাথে দলে দলে মানুষ এ দরবারে আসতে শুরু করে। মাইজভান্ডার দরবার থেকে খালি হাতে বঞ্চিত হতে হচ্ছে না। মাইজভান্ডার দরবার শরীফ থেকে বাদশা-ফকির, ধনী-গরিব, হিন্দু-মুসলিম, বৌদ্ধ ও খৃস্টানসহ সকল জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকলে উপকার পেতে লাগলেন। হযরতের অসংখ্য অলৌকিক কারামত যা লিপিবদ্ধ করা সম্ভব নয়।

মাইজভান্ডারী তরিকার প্রবর্তক গাউছুল আ’যম হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী আল-হাসানী ওয়াল হোসাইনী কাদ্দাছাল্লাহু ছিররাহুল আজিজ লক্ষ লক্ষ আশেক ও ভক্তমন্ডলীকে শোকে ভাসিয়ে ১৯০৬ খ্রীস্টাব্দ, ১৩২৩ হিজরী ও ১৩১৩ বাংলা ১০ মাঘ রোজ বুধবার প্রায় ৭৯ বছর বয়সে ওফাত লাভ করেন।

মহান আল্লাহ তায়ালা ও তাঁর প্রিয় হাবিব (সাঃ) এর দরবারে ফরিয়াদ হযরত গাউছুল আ’যম মাইজভান্ডারী (কঃ) এর পবিত্র ওরশ শরীফের দিনে আমাদের সকলকে যেন তাঁহার রুহানি ফয়েজ ও বরকত হাসিলের তৌফিক দান করুন। “আমিন”

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

লড়াই করেও শেষপর্যন্ত কুমিল্লার কাছে হারে খুলনা
খুলনায় ১কেজি ৭৫০ গ্রাম সোনার বারসহ ২ জনকে আটক
রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি রহমত উল্যাহ সম্পাদক কবির হোসেন
ভারতে ৩ বিমান বিধ্বস্ত
আত্রাইয়ে চোরসহ গ্রেপ্তার ৪
হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পুতুল নাচ

আরও খবর


close