সোমবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ০.৩৮°সে
সর্বশেষ:
ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বাড়ল পাউরুটির দাম ক্যামেরুনের রাজধানী ইয়াউন্ডের নাইটক্লাবে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ১৬ ৯০ বছরের বৃদ্ধা সাংবাদিক দেলোয়ার হাসানের মা আমরণ অনশনে শাবির আন্দোলনে একাত্মতা সাধারণ শিক্ষার্থীদের নার্গেস মোহাম্মদীকে৭০ বেত্রাঘাতের নির্দেশ বরিশালে জেলা দক্ষিণ ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে তোলপাড় কওমি মাদ্রাসার শিক্ষা ব্যবস্থা কার্যকর করার জন্য নিবন্ধন জরুরি: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী যমুনা টিভির সাংবাদিকের উপর হামলা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার চকরিয়ায় সালিসে অংশ নিতে এসে খুন করোনার কারণে বিয়েও বাতিল করলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইসি গঠন আইন বিল সংসদে উত্থাপন পুলিশ সপ্তাহ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশে সবজি নিত্যপণ্যেও দাম সাধারণের নাগালের বাইরে

ভিওএনজে ডেস্ক:

শীতে সবজির প্রচুর সরবরাহ থাকলেও কমেনি দাম। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। এছাড়াও অন্যান্য নিত্যপণ্যের দামও সাধারণের নাগালের বাইরে চলে গেছে। শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এসব তথ্য মিলেছে।
বাজারে বেশিরভাগ সবজির দাম কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা দাম বেড়েছে। এসব বাজারে প্রতিকেজি টমেটো ১৪০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, সিম বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা, (গোল) বেগুন ৮০ টাকা, (লম্বা) বেগুন ৬০ টাকা, ফুলকপি প্রতি পিস ৬০ টাকা, পাতাকপি ৫০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, গাজর প্রতি কেজি ১২০ টাকা, চাল কুমড়া পিস ৪০ টাকা, প্রতি পিস লাউ আকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়ার কেজি ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, লতি ৬০ টাকা, কাকরোল ৮০ টাকা, মুলা ৫০ টাকা, কচুর লতি ৬০ টাকা ও পেঁপের কেজি ৪০ টাকা।

মোহাম্মদপুরের টাউন হল বাজারের এক ক্রেতা বলেন, সবজি থেকে শুরু করে নিত্যপণ্যের সব ব্যবসায়ীরা জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিকে পুঁজি করে পণ্যের দাম বাড়াচ্ছেন। এতে কষ্ট বাড়ছে নিম্ন আয়ের মানুষের। চাহিদার তুলনায় কম পণ্য কিনতে হচ্ছে তার মতো বহু ক্রেতার। শীতের মৌসুমে সবজির সরবরাহ অনেক। তারপরেও কমেনি সবজির দাম।
এ সব বাজারে আলুর দাম বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা কেজি। দেশি পেঁয়াজ কেজি ৫৫-৬০ টাকা। ইন্ডিয়ান ও মায়ানমারের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।দাম কমেছে কাঁচামরিচের। ৪০ টাকা কমে প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। কাঁচা কলার হালি বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়। শসা ৮০ আর লেবুর হালি ১৫-২০ টাকায়।

এছাড়া শুকনা মরিচ প্রতি কেজি ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা, রসুনের কেজি ৮০ থেকে ১৩০ টাকা, দেশি আদা বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। চায়না আদার কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকা। হলুদের কেজি ১৬০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ইন্ডিয়ান ডালে কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৯০ এবং দেশি ডাল ১১০ টাকায়।

এসব বাজারে ভোজ্যতেলের প্রতি লিটার খুচরা বিক্রি হচ্ছে ১৫৫ টাকা। এছাড়াও বাজারে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের তেলের লিটার বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকায়। চিনি ৭৫ থেকে ৮০ টাকা। এছাড়া প্যাকেট চিনি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮৫ ও আটা ৩৫ টাকায়।

কারওয়ান বাজারে আসা একজন সিএনজিচালক জানান, আটা, চিনি ও তেলের দাম এত বেশি, সেগুলোতে হাত দেওয়া যায় না। দিনে যা পরিমাণ আয় করেন, তা দিয়ে প্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে পারছেন না।এছাড়া বাজারে অপরিবর্তিত আছে ডিমের দাম। লাল ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকায়। হাঁসের ডিমের ডজনে দাম বেড়েছে বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকা। সোনালি (কক) মুরগির ডিমের ডজন বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকায়।

ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৫৫ থেকে ১৫০ টাকা। গত সপ্তাহের দামে বিক্রি হচ্ছে সোনালি মুরগি। ২৬০ টাকা কেজি। লেয়ার মুরগি কেজিতে ২০ টাকা দাম বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২৬০ টাকায়।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

৯০ বছরের বৃদ্ধা সাংবাদিক দেলোয়ার হাসানের মা আমরণ অনশনে
শাবির আন্দোলনে একাত্মতা সাধারণ শিক্ষার্থীদের
বরিশালে জেলা দক্ষিণ ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে তোলপাড়
কওমি মাদ্রাসার শিক্ষা ব্যবস্থা কার্যকর করার জন্য নিবন্ধন জরুরি: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী
যমুনা টিভির সাংবাদিকের উপর হামলা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার
চকরিয়ায় সালিসে অংশ নিতে এসে খুন

আরও খবর


close