রবিবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩.২৭°সে
সর্বশেষ:
দেশীয় খেলাকে সমান সুযোগ দিন: প্রধানমন্ত্রী হলুদ সাংবাদিকতা প্রতিরোধ ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা শীর্ষক সুনামগঞ্জে গণমাধ্যমকর্মীদের নিয়ে কর্মশালা আফগানিস্তানে তুমুল বর্ষণে নিহত আরো ২৯ নিউইয়র্কে আদালতের সামনে গায়ে আগুন দেওয়া ব্যক্তির মৃত্যু গরমে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসও বন্ধ ঘোষণা লাইভ সংবাদ পাঠের সময় গরমে অজ্ঞান সংবাদ পাঠিকা অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের ঘোষণা ৬ সন্তানের জন্ম, আনন্দে আত্মহারা মা-বাবা খুলনায় ১২ স্বর্ণের বারসহ যুবক আটক আদালতের ভেতরে ট্রাম্প, বাইরে শরীরে আগুন দিলেন কে এই ব্যক্তি? এবার পাগলা মসজিদের দানবাক্সে মিলল ২৭ বস্তা টাকা ভোট দেওয়াটা আসলে একজন নাগরিকের কর্তব্য:রজনীকান্ত

হিরো আলমের ওপর হামলার ঘটনায় মামলায় ২০ আসামি

অনলাইন ডেস্ক:
ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণের দিনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আশরাফুল আলম (হিরো আলম)-এর ওপর হামলার ঘটনায় অজ্ঞাত ১৫ থেকে ২০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) রাজধানীর বনানী থানায় এ মামলা করেন হিরো আলমের ব্যক্তিগত সহকারী সুজন রহমান শুভ।

এজাহারে বাদী অভিযোগ করেন, ‘১৭ জুলাই ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হলে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন আলম এবং তার ব্যক্তিগত সহকারী পরান সরকার, প্রতিনিধি রাজীব খন্দকার, মো. রনি, মো. আল আমিনসহ অনেকে বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করতে থাকেন। তারই ধারাবাহিকতায় আশরাফুল হোসেন আলম এবং আমিসহ প্রতিনিধিরা বিকাল সাড়ে ৩টায় বনানী থানার বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে পরিদর্শনের জন্য যাই। অতঃপর প্রার্থী মো. আশরাফুল হোসেন আলমসহ আমরা ৫/৬ জন বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল অ্যান্ড কলেজ ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে বিকাল ৩টা ৪০ মিনিটের দিকে কেন্দ্র থেকে বের হওয়ার সময় অজ্ঞাতনামা ১৫/২০ জন বেআইনিভাবে সংঘবদ্ধ হয়ে আমাদের গতিরোধ করে, বিভিন্ন ধরনের গালিগালাজ করতে থাকে।’

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, ‘এক পর্যায়ে বিবাদীরা হত্যার উদ্দেশ্যে প্রার্থী মো. আশরাফুল হোসেন আলমকে আক্রমণ করে এলোপাতাড়ি কিলঘুসি মারতে থাকে। মারধরের এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে থেকে অজ্ঞাতনামা একজন বিবাদী হত্যার উদ্দেশ্যে দুই হাতে আশরাফুল হোসেন আলমের কলার চেপে ধরে শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে। অপর একজন তার তলপেটে লাথি মারলে আশরাফুল হোসেন আলম রাস্তায় পড়ে যান। তখন অন্যান্য বিবাদী মো. আশরাফুল হোসেন আলমকে এলোপাথাড়ি কিলঘুসি ও লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে এবং টানা-হেঁচড়া করে। তখন আমি এবং অপর ব্যক্তিগত সহকারী পরান সরকার মিলে মো. আশরাফুল হোসেন আলমকে হামলাকারীদের হাত থেকে রক্ষার জন্য এগিয়ে গেলে তারা আমাকেসহ ব্যক্তিগত সহকারী পরান সরকার, রাজীব খন্দকার, রনি ও আল আমিনকে মারপিট করে জখম করে। অতঃপর ওই কেন্দ্রে ডিউটিরত পুলিশ এবং ‘একতারা’ প্রতীকের সমর্থনকারীদের সহায়তায় মো. আশফুল হোসেন আলমসহ আমরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করি।’

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

দেশীয় খেলাকে সমান সুযোগ দিন: প্রধানমন্ত্রী
হলুদ সাংবাদিকতা প্রতিরোধ ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা শীর্ষক সুনামগঞ্জে গণমাধ্যমকর্মীদের নিয়ে কর্মশালা
গরমে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসও বন্ধ ঘোষণা
অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের ঘোষণা
খুলনায় ১২ স্বর্ণের বারসহ যুবক আটক
এবার পাগলা মসজিদের দানবাক্সে মিলল ২৭ বস্তা টাকা

আরও খবর