শুক্রবার, ২৬শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২৮.৩৩°সে
সর্বশেষ:

যুক্তরাষ্ট্র ভায়োলেন্স ফ্রি-পিসফুল-ফেয়ার ইলেকশন চায় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা: যুক্তরাষ্ট্র ভায়োলেন্স ফ্রি-পিসফুল-ফেয়ার ইলেকশন চায়, এর বাইরে কিছুই চায় না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মার্কিন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে বৃহস্পতিবার (১৩ জুলাই) দুপুরে সচিবালয়ে গণামাধ্যমকর্মীদের তিনি এ কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তারা সব কিছু নিয়ে সন্তুষ্ট এবং তারা বলেছেন যে, আগামী নির্বাচন যাতে ভীতিমুক্ত ও সহিংসতামুক্ত হয় এটা তারা দেখতে চান। আমরা বলছি যে, আমাদের নির্বাচনের সময় সংবিধান অনুযায়ী আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নির্বাচন কমিশনের অধীনে থাকবে। কমিশন যেভাবে নির্দেশনা দেবে, সেভাবেই তারা কাজ করবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রস্তুত আছে এবং তারা যে আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কিছু বিশেষায়িত বাহিনীকে প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র দিয়েছে সেটাও আমি তাদের মনে করিয়ে দিয়েছি।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘অংশগ্রহণমূলক (নির্বাচন) তারা বলেননি। তারা ফ্রি, ফেয়ার এবং পিসফুল ইলেকশন চেয়েছেন। ভায়োলেন্স ফ্রি ইলেকশন তারা চেয়েছেন। আমরা বলেছি, আমাদের সিকিউরিটি ফোর্স, আমাদের ল’ এনফোর্সমেন্ট ফোর্স সব সময় তৈরি আছে। তারা ওয়েল ট্রেইন্ড, তাদের তোমরা অনেক কিছু দিয়ে ট্রেইনিং করিয়েছো এবং সেই ট্রেইনিংয়ে তারা উজ্জীবিত আছে। ইতোমধ্যে অনেকগুলো ইলেকশন হয়ে গেছে, যেগুলো অত্যন্ত পিসফুল হয়েছে। সে রকম ন্যাশনাল ইলেকশনটাও পিসফুল হবে। আমরা সেটাই আশা করছি।’

গতকাল মার্কিন প্রতিনিধি দল রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছে, তারা কোনো পর্যবেক্ষণ জানিয়েছে কি না প্রশ্ন করা হলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তারা কোনো পর্যবেক্ষণ দেয়নি। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাদের যে আলোচনা হয়েছে, সেই আলোচনায় আমার মনে হয়েছে তারা অত্যন্ত সন্তুষ্ট।’

বিএনপি ১ দফা দাবি প্রসঙ্গে কোনো আলোচনা হয়নি জানিয়ে আরেক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তারা এটুকু বলেছে তারা কোনো পার্টিকে এনকারেজ করার জন্য এখানে আসে নাই। তারা কোনো দলকে সাপোর্ট করেন না। তারা এসেছেন এখানে যেন একটি ভায়োলেন্স ফ্রি-পিসফুল-ফেয়ার ইলেকশন হয়। এর বাইরে তারা কিছুই চান না, কিছুই বলেননি। এটা বারবার বলে গেছেন, কোনো দলকে, কোনো ব্যক্তিকে সাপোর্ট করার জন্য তারা এখানে আসেননি।’

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যান মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের বেসামরিক নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি আজরা জেয়া। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ৩০ মিনিটেরও বেশি সময় বৈঠক করেছেন তিনি। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে দেখা করেন আজরা।

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নিতে দুপুর ১টা ২০ মিনিটে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় গিয়েছেন আজরা। সেখানে তিনি পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠক করছেন। আজরা জেয়ার সঙ্গে আছেন মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি ডোনাল্ড লু।

বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তা ও সুশীল সমাজের বিশিষ্টজনদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে বসার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ব্রিফিং করবেন আইনমন্ত্রী
২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত
সারাদেশে রেল যোগাযোগ বন্ধ
বিটিভি গেটে আগুন, গাড়ি ভাঙচুর
উত্তরায় পুলিশ ও র‍্যাবের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ৪
শাবিপ্রবিতে পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ, আহত অর্ধশত

আরও খবর