বুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩.৫১°সে
সর্বশেষ:
গিলাতলা দক্ষিনপড়ায় বিট পুলিশিং কমিটির আয়োজনে সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত নিউইয়র্কের আন নুর কালচারাল সেন্টারের গ্রাজুয়েশন সিরিমনি সম্পন্ন নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের মতবিনিময় সভা অবশেষে জনসম্মুখে চীনের প্রেসিডেন্ট পাটকাঠি আস্ত রেখে পাটের আঁশ ছাড়ানোর যন্ত্র আবিষ্কার বাবুল আক্তারসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে পিবিআই প্রধানের মামলা সাফজয়ী নারী দলকে কোটি টাকার চেক দিল সেনাবাহিনী আমেরিকায় মা হয়েছেন বুবলী! ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের উপর ছাত্রলীগের হামলা সুনামগঞ্জ জেলা আ’লীগ সভাপতি ও সম্পাদকের বক্তব্য নির্লজ্জ মিথ্যাচার, যা অগঠনতান্ত্রিক- নুরুল হুদা মুকুট সুনামগঞ্জে এলজিএসপির অগ্রগতি ও অর্জন অবহিতকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত ত্রিশালে গুজবের বিলে শাপলার সৌন্দর্য, দর্শনার্থীদের ভিড়

মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক শেষে আইজিপির বিষয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক:

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পুলিশপ্রধানদের সম্মেলনে বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। খবর-যুগান্তর।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘের মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে, চুক্তিও আছে। তার ওপরে ভিত্তি করেই বেনজীরের যাওয়া নিয়ে কাজ চলছে।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন। এর আগে মন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে আসা ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের বৈঠক হয়।

মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে গত বছরের ১০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) এবং র‌্যাবের সাবেক মহাপরিচালক হিসেবে বেনজীর আহমেদসহ বাহিনীর সাবেক এবং বর্তমান ছয় কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় মার্কিন রাজস্ব বিভাগ ও পররাষ্ট্র দপ্তর।

পিটার হাসের সঙ্গে বৈঠকে নিউইয়র্কে পুলিশপ্রধানদের সম্মেলনে যোগ দিতে বেনজীর আহমেদের যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে কি না- এ বিষয়ে সাংবাদিকেরা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউএনএর (জাতিসংঘ) মধ্যকার সম্পর্ক রয়েছে, এগ্রিমেন্ট (চুক্তি) রয়েছে। তার ওপরে ভিত্তি করে সে বিষয়ে কাজ চলছে।’

বৈঠকে র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা তোলার সুপারিশ জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই বাহিনীর কেউ বেআইনি কাজ করলে তাকে আইনের আওতায় আনে সরকার।

মন্ত্রী বলেন, ‘র‌্যাবের বিষয়ে আমি এও বলেছি, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমাদের ল এনফোর্সমেন্ট এজেন্সি সেলফ ডিফেন্সে গুলি করে থাকে।সেটা যথাযথ হয়েছে কি না, সেটা নিশ্চিত করার জন্য একজন ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয় ঘটনার পরপরই। তিনি (ম্যাজিস্ট্রেট) যদি মনে করেন এটা যথাযথ হয়নি, তাহলে সেই সদস্যকে ট্রায়াল ফেইস করতে হয়।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি (মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার) বলেছেন, এটা তো আপনারা পাবলিকলি এনাউন্স করেন না। আমরা বলেছি, যেগুলো করার সেগুলো আমরা করছি।’

What the Home Minister said about the IGP after the meeting with the US Ambassador

Online Desk:

Bangladesh Inspector General of Police (IGP) Dr. Home Minister Asaduzzaman Khan Kamal said that work is going on regarding Benazir Ahmed’s departure. News-breakthrough.

The Home Minister said that there is a relationship between the United States and the United Nations and there is also an agreement. Based on that, Benazir’s departure is being worked on.

After a meeting at the Secretariat on Tuesday, the Home Minister said this in response to questions from journalists. Earlier, US Ambassador Peter Haas, who came to Dhaka for a courtesy call, had a meeting with the minister.

The United States Department of Revenue and the State Department imposed sanctions on six former and current officers of the Rapid Action Battalion (RAB) and RAB’s former director general Benazir Ahmed on charges of human rights violations.

In the meeting with Peter Haas, there was a discussion about Benazir Ahmed going to the United States to attend the conference of police chiefs in New York or not – the interior minister said, ‘There is a relationship between the United States and the UN (United Nations), there is an agreement. Based on that, work is going on.’

In the meeting, the home minister told the US ambassador that the ban on RAB should be lifted.

The minister said, ‘I have also said about RAB, in most cases our law enforcement agency fires in self-defence. A magistrate is appointed immediately after the incident to ascertain whether it was justified or not. If he (the magistrate) thinks it is not proper, then that member has to face trial.’

The Home Minister said, ‘He (US Ambassador Peter) said, you don’t announce this publicly. We are doing what we have said.’

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

গিলাতলা দক্ষিনপড়ায় বিট পুলিশিং কমিটির আয়োজনে সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত
অবশেষে জনসম্মুখে চীনের প্রেসিডেন্ট
পাটকাঠি আস্ত রেখে পাটের আঁশ ছাড়ানোর যন্ত্র আবিষ্কার
বাবুল আক্তারসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে পিবিআই প্রধানের মামলা
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের উপর ছাত্রলীগের হামলা
সুনামগঞ্জ জেলা আ’লীগ সভাপতি ও সম্পাদকের বক্তব্য নির্লজ্জ মিথ্যাচার, যা অগঠনতান্ত্রিক- নুরুল হুদা মুকুট

আরও খবর


close