সোমবার, ২৬শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২৬.১৫°সে
সর্বশেষ:
সুনামগঞ্জে তিন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত সিলেটে ভুয়া সাংবাদিকসহ গ্রেপ্তার ৭ করোনায় ক্রীড়াবিদ শাহ আবু জাকেরের মৃত্যু গণমানুষের শিল্পী চামড়ার নির্ধারিত মূল্য উপেক্ষিত দিল্লি-রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছে তৃণমূল সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদ বিবরণী জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশনা টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশের রেকর্ড গড়া জয় ‘কঠোরতম লকডাউনের’শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত কান্দাহার প্রদেশে তালেবানের হামলায় ঘরবাড়ি ছেড়েছে ২২ হাজার পরিবার প্রতি মাসে এক কোটি মানুষকে টিকা দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী আথিয়াকে ফলো না করার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী: সালমান

‘প্রিন্স অব খাগড়াছড়ির’ দাম ৮ লাখ টাকা

ভিওএনজে ডেস্ক:
দেখতে কুচকুচে কালো, তবু নাম তার ‘প্রিন্স অব খাগড়াছড়ি’। ২০ মণ ওজনের এই ষাঁড়টি খাগড়াছড়ির সবচে বড় কোরবানির পশু। উচ্চতায় সাড়ে পাঁচ আর দৈর্ঘ্যে আট ফুটের এই রাজপুত্রের দাম হাঁকানো হয়েছে আট লাখ টাকা। তবে লকডাউনের কারণে পশু বিক্রি নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন বলে জানান ষাঁড়টির মালিক মাটিরাঙা পৌর এলাকার ওয়ালীউল্লাহ্ অলি।

জানা যায়, ‘ প্রিন্স অব খাগড়াছড়ির’ হাঁটাচলা কিংবা হাঁকডাকে বেশ রাজকীয় ভাব। গঠন-গড়নেও দারুণ হৃষ্টপুষ্ট। ওজনে সাড়ে ২০ মণ, অর্থাৎ ৮২০ কেজি। কুচকুচে কালো হলেও নাম তার ‘খাগড়াছড়ির রাজপুত্র’। কিছুটা রাগী স্বভাবের এই রাজপুত্র উচ্চতায় সাড়ে পাঁচ আর দৈর্ঘ্যে আট ফুট। ষাঁড়টির প্রজনন হয়েছিল একটি ফ্রিজিয়ান জাতের গাভীতে শাহিওয়াল জাতের ক্রস ব্রিডিংয়ের মাধ্যমেই।

পরিচর্যাকারীরা জানান, রাজপুত্রের বয়স ৪ বছর। মোটাতাজাও করেছেন খাঁটি দেশীয় পদ্ধতিতে। কোনোরকম হরমোন ইনজেকশন কিংবা রাসায়নিক ওষুধ ছাড়াই দেশীয় খাবার খাইয়ে করা হয়েছে হৃষ্টপুষ্ট।

এদিকে জেলার সবচে বড় কোরবানির পশুটি দেখতে প্রতিদিনই ছুটে আসছেন উৎসুক জনতা।

স্থানীয় ক্রেতা অন্তর মাহমুদ, জমির আলী ও মেহেরাব হোসেন জানান , ‘প্রিন্স অব খাগড়াছড়িকে’ একনজর দেখতে এসেছি। এটি সম্ভবত জেলার সবচেয়ে বড় গরু। মালিকের সঙ্গে দরকষাকষি চলছে। উপযুক্ত দামে পেলে কিনে নেব।

করোনার কারণে ক্রেতার সমাগম কম। কাঙ্ক্ষিত মূল্য পেলে গরু বিক্রির কথা জানিয়েছেন ষাঁড়ের মালিক ওয়ালীউল্লাহ্ অলি। তিনি জানান, জন্মের পর থেকেই অনেক আদরযতেœ বড় হয়েছে প্রিন্স। পরিবারের সদস্যের মতোই লালন-পালন করা হয়েছে তাকে। মোটাতাজাও করেছেন খাঁটি দেশীয় পদ্ধতিতে। ষাঁড়টির দাম দিয়েছি আট লাখ টাকা। ইতোমধ্যে ঢাকা, চট্টগ্রাম থেকে অনেকে ষাঁড়টি দেখতে এসেছে। উপযুক্ত দাম পেলে এটি বিক্রি করা হবে।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো. নুরুল আফসার বলেন, আমার জানা মতে—‘ প্রিন্স অব খাগড়াছড়ি ’ জেলার সবচেয়ে বড় গরু। ঘরোয়ভাবে মালিক এটি লালন-পালন করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

করোনায় ক্রীড়াবিদ শাহ আবু জাকেরের মৃত্যু
সরকারি চাকরিজীবীদের সম্পদ বিবরণী জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশনা
প্রতি মাসে এক কোটি মানুষকে টিকা দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
পুঁজিবাজারে লেনদেন শেষ হলো উত্থানে
বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় ২২৮ জন করোনায় মৃত্যু
করোনা সংক্রমণ রোধে সিলেটে পুলিশের ৪৬ চেকপোস্ট

আরও খবর


close