মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩০.১১°সে
সর্বশেষ:
সিলেট রেঞ্জ ডিআইজি কর্তৃক বিশ্বম্ভরপুর থানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্ণার ও লাইব্রেরি উদ্ভোধন সুপার এইট থেকে বিদায় নেওয়া বাংলাদেশ কত টাকা পাচ্ছে তিস্তা-গঙ্গার পানি বণ্টন হলে ভারতজুড়ে বড় আন্দোলন হবে : মমতা অধিবেশনের প্রথম দিন এমপি পদ থেকে ইস্তফা রাহুলের লালমনিরহাটে রাসেলস ভাইপার সন্দেহে মেরে ফেলা হলো দু’টি সাপ যুক্তরাজ্যের আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে ২৫ বাংলাদেশি প্রার্থী যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার জঙ্গল থেকে ১০ দিন পর পর্বতারোহী উদ্ধার খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে কাল বিএনপির সংবাদ সম্মেলন মারা গেছেন সেই ‘জল্লাদ’ শাহজাহান চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে বিআরটিএর অভিযানে ১৮ মামলা আলোচিত পাপিয়া কুমিল্লা কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি লাভ একাদশে ভর্তিতে প্রথম পর্যায়ের ফল জানবেন যেভাবে

নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ করবে বিএনপি

ঢাকা: গোলাপবাগ মাঠে মহাসমাবেশ করার জন্য ঢাকা মহানগর পুলিশ বিএনপিকে যে পরামর্শ দিয়েছিল তাতে রাজি হয়নি দলটি। বরং দলটি রাজধানীর নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে। সেই সঙ্গে তারা সমাবেশের তারিখ পরিবর্তন করে আগামী শুক্রবার নির্ধারণ করেছে।

শুক্রবার রাত ৯টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাসী বিএনপি শান্তিপূর্ণভাবে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার চলমান আন্দোলনকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবারের পরিবর্তে শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে দুপুর ২টায় নয়াপল্টনে পূর্বঘোষিত মহাসমাবেশ করবে।

এ সময় তিনি সংশ্লিষ্ট সবাইকে বিশেষ করে ঢাকা মহানগর পুলিশকে শান্তিপূর্ণভাবে মহাসমাবেশ সফল করার জন্য আহ্বান জানান। একই সঙ্গে সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণভাবে সংযত থেকে কোনো উসকানির মধ্যে পা না দিয়ে মহাসমাবেশে যোগদানের জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব।

মহাসমাবেশের জন্য বিএনপি নয়াপল্টন অথবা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান চেয়েছিল। তবে তাদের গোলাপবাগ মাঠে যাওয়ার পরামর্শ দেয় ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

ওই দুই জায়গায় অনুমতি না পাওয়ায় সিদ্ধান্ত নিতে বুধবার বিকালে বৈঠকে বসে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটি।

নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ওই বৈঠকে লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, অনির্বাচিত ও অবৈধ ক্ষমতাসীন সরকারের সীমাহীন দুর্নীতি, অনাচার, গুম, খুন, অত্যাচার নিপীড়নের শিকার আমাদের প্রিয় মাতৃভূমির জনগণের রক্তার্জিত স্বাধীনতার সুবর্ণ ফসল গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধারের চলমান আন্দোলন আজ এক দফার আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। এ আন্দোলনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলসহ দেশের সব গণতন্ত্রকামী রাজনৈতিক দল বৃহস্পতিবার রাজধানী ঢাকায় শান্তিপূর্ণ মহাসমাবেশ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেয়। আমাদের যে যুগপৎ আন্দোলন চলছে সেখানে সব গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলসহ বাইরের বেশ কয়েকটি দলও তাদের মতো করে এ মহাসমাবেশের ঘোষণা করে।

‘আমরা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অথবা নয়াপল্টনে এ মহাসমাবেশ অনুষ্ঠানের কথা গত ২৩ জুলাই ঢাকা মহানগর পুলিশকে জানাই। তারা আমাদের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে উচ্চ আদালতের আপত্তি এবং কর্মদিবসে নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ অনুষ্ঠানে জনদুর্ভোগের অজুহাতে সমাবেশ অনুষ্ঠানে আপত্তি জানায়। যদিও ইতোপূর্বে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এবং কর্মদিবসে নয়াপল্টনে অসংখ্য সমাবেশ-মহাসমাবেশ অনুষ্ঠানের দৃষ্টান্ত রয়েছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা অনেকভাবে চেষ্টা করেছি। আমি ব্যক্তিগতভাবে কথা বলেছি। তারপরও পুলিশ তাদের অবস্থানে অনড় থেকেছে। আমাদের গণতান্ত্রিক সাংবিধানিক সমাবেশের অধিকারে আপত্তি জানিয়েছে।

তিনি বলেন, বিএনপি বরাবরই শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাসী। সরকার ও সরকারদলীয় বিভিন্ন বাহিনীর নানা উসকানি এমনকি গত এক বছরে ২০ জন নেতাকর্মীর হত্যা ও অসংখ্য নেতাকর্মী নির্যাতিত হওয়ার পরও সীমাহীন ধৈর্য ও সহিষ্ণুতার পরিচয় দিয়েছি। এমনকি এ মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে ঢাকাসহ সারা দেশে অসংখ্য নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে ও হচ্ছে। ঢাকার বিভিন্ন হোটেল এবং সারা দেশে নেতাকর্মীদের বাসা-বাড়িতে পুলিশি তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আমরা আশা করি, দেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে চলমান গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের অংশ হিসেবে শুক্রবারের এ মহাসমাবেশ অনুষ্ঠানে সরকার কিংবা সরকারের কোনো প্রতিষ্ঠান বাধা সৃষ্টি করবে না। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে আয়োজিত যেকোনো গণতান্ত্রিক কর্মসূচি বাধাগ্রস্ত করার যেকোনো অপচেষ্টা দেশবাসী প্রকৃতপক্ষে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে বাধা সৃষ্টি হিসেবেই দেখবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আযম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব মুজিবুর রহমান সরোয়ার প্রমুখ।

 

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

সিলেট রেঞ্জ ডিআইজি কর্তৃক বিশ্বম্ভরপুর থানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্ণার ও লাইব্রেরি উদ্ভোধন
সুপার এইট থেকে বিদায় নেওয়া বাংলাদেশ কত টাকা পাচ্ছে
তিস্তা-গঙ্গার পানি বণ্টন হলে ভারতজুড়ে বড় আন্দোলন হবে : মমতা
লালমনিরহাটে রাসেলস ভাইপার সন্দেহে মেরে ফেলা হলো দু’টি সাপ
যুক্তরাজ্যের আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে ২৫ বাংলাদেশি প্রার্থী
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার জঙ্গল থেকে ১০ দিন পর পর্বতারোহী উদ্ধার

আরও খবর