বুধবার, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২১.৮°সে
সর্বশেষ:
ফিলিস্তিনকে সমর্থন করায় মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাণ্ড ইরানকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র অনিবন্ধিত ও অবৈধ অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধে পদক্ষেপ নেবে সরকার ফ্লাইওভার থেকে পড়ে গেল বাস, নিহত ৫ আহত ৪০ বাবার চড়ে ছিটকে শিশুকন্যার মৃত্যু রাঙ্গামাটি মাসস উদ্যােগের নর্ববষ বরন ও মহা সাংগ্রাই জলকেলি অনুষ্ঠিত (ভিডিও) খুলনা গাইকুর হাত-পা বাঁধা, গলায় ফাঁস দেওয়া যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু কিশোরগঞ্জে ১৪ কিলোমিটার দৃষ্টিনন্দন বৈশাখী আলপনা! আইপিএলে ফর্মে থাকায় ছুটি বাড়ল মোস্তাফিজের রাঙ্গামাটি কাপ্তাই চিংম্রং এ মারমা সম্প্রদায়ের মহা সাংগ্রাঁই জল উৎসব কাপ্তাইয়ে শিশু নির্যাতন পরোয়ানা ভুক্ত আসামী আটক ইসরাইলে হামলা ইরানের, নীরবে পিছু হটছে যুক্তরাষ্ট্র!

উত্তাল ফ্রান্স, গ্রেপ্তার ৪২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে পুলিশের গুলিতে ১৭ বছরের এক আলজেরিয়-বংশোদ্ভূত তরুণ নিহত হওয়ার ঘটনায় উত্তাল দেশটি। বিক্ষোভ দমাতে দেশটিতে গতকাল বৃহস্পতিবার ৪০ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিবিসির লাইভ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এতে এখন পর্যন্ত ৪২১ জন বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সহিংসতায় আহত হয়েছে ১৭০ জন পুলিশ।
ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, গত মঙ্গলবার প্যারিসের পশ্চিমদিকে নান্তেরে এলাকায় নাহেল এম নামের ওই তরুণ গাড়ি চালিয়ে যাবার সময় ট্রাফিক পুলিশ তাকে থামতে বলে। সে না থামলে পুলিশ খুব কাছে থেকে তাকে গুলি করে।
ইতিমধ্যে এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। তিনি একে ক্ষমার অযোগ্য বলে উল্লেখ করেছেন।
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, একজন পুলিশ অফিসার একটি গাড়ির চালকের দিকে বন্দুক তাক করে আছে। এরপর একটি গুলির শব্দ শোনা যায় এবং তারপর গাড়িটি থেমে যায়।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুকে গুলিবিদ্ধ নাহেলকে জরুরি চিকিৎসা দেওয়া হলেও বাঁচানো যায়নি। গুলিবর্ষণকারী অফিসারটিকে হত্যার অভিযোগে আটক করা হয়েছে। বিবিসির লাইভ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হেফাজতে থাকা ওই পুলিশ নিহত কিশোরের পরিবারের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

ফরাসী মিডিয়ায় বলা হচ্ছে, পুলিশ প্রথমে ইঙ্গিত দিয়েছিল যে তরুণটি তাদের দিকেই গাড়িটি চালিয়ে দিয়ে পুলিশদের আহত করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও দেখে ধারণা হয় যে প্রকৃত ঘটনা ছিল ভিন্ন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার রাত থেকেই প্যারিস ও অন্য আরো কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ ও সহিংসতা শুরু হয়। এরপর টানা তিনদিন চলছে সহিংস বিক্ষোভ। এতে গাড়ি ও বাসস্টপে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে, ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে কিছু রাস্তায়, আক্রান্ত হয়েছে পুলিশ স্টেশনও। বিক্ষোভকারীদের হটাতে দাঙ্গা পুলিশ টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করেছে।
নিহতের মা মুনিয়া সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘সে সকাল বেলাও বলছিল মা আমি তোমাকে ভালোবাসি, তার পর কাজে যায়, এর এক ঘণ্টা পর আমি একটা ফোন পাই- আমাকে বলা হয় আমার ছেলেকে গুলি করা হয়েছে।’
রয়টার্স বলছে, ২০১৭ সাল থেকে ট্রাফিক স্টপে পুলিশের গুলিতে যত জন নিহত হয়েছে তার বেশির ভাগই কৃষ্ণাঙ্গ বা আরব। এ বছর ফ্রান্সে ট্রাফিক স্টপে পুলিশের গুলিতে মৃত্যুর এটা দ্বিতীয় ঘটনা। গত বছর ফ্রান্সে এভাবে রেকর্ড সংখ্যক মোট ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

ফিলিস্তিনকে সমর্থন করায় মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাণ্ড
ইরানকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র
অনিবন্ধিত ও অবৈধ অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধে পদক্ষেপ নেবে সরকার
ফ্লাইওভার থেকে পড়ে গেল বাস, নিহত ৫ আহত ৪০
রাঙ্গামাটি মাসস উদ্যােগের নর্ববষ বরন ও মহা সাংগ্রাই জলকেলি অনুষ্ঠিত (ভিডিও)
কিশোরগঞ্জে ১৪ কিলোমিটার দৃষ্টিনন্দন বৈশাখী আলপনা!

আরও খবর