শুক্রবার, ২৬শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২৮.৪৪°সে
সর্বশেষ:
প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে কমলা হ্যারিসকে ‘পছন্দ নয়’ ওবামার কমলা প্রেসিডেন্ট হলে দেশকে ধ্বংস করে দেবেন: ট্রাম্প কোটা আন্দোলন: সহিংসতায় নিহতদের পরিবারের দায়িত্ব নেবেন প্রধানমন্ত্রী জরুরি নন, কর্মী বাংলাদেশ ছাড়তে বলেছে যুক্তরাষ্ট্র হেলিকপ্টার থেকে গ্যাস-সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ হয়েছে, গুলি করা হয়নি: র‍্যাব বাংলাদেশে শিগগিরই শান্তি ফিরবে, আশা ভারতের কোটা আন্দোলন ঘিরে সহিংসতা:স্বজনদের কাছে হস্তান্তর ৮৫ লাশ, চিকিৎসাধীন ২১৮ স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি দেশব্যাপী ধ্বংসলীলা চালিয়েছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কোটা আন্দোলন ঘিরে সংঘর্ষ : রাজধানীতে বেওয়ারিশ ২১ লাশ দাফন শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পাশে দাঁড়ালেন কলকাতার নায়িকা আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে বসার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ব্রিফিং করবেন আইনমন্ত্রী ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত

ইউক্রেনের আরেক বাঁধে হামলা, অস্বীকার রাশিয়ার

অনলাইন ডেস্ক:
বৃহত্তর কখোভকা বাঁধ ধ্বংসের পর এবার রুশদের বিরুদ্ধে আরেকটি বাঁধ ধ্বংস করার অভিযোগ তুলেছে ইউক্রেন। পশ্চিম ডোনেটস্কের মোকরি ইয়ারি নদীর ধারে ছোট বাঁধটি উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানায় কিয়েভ।

কখোভকা বাঁধ ধ্বংসের ছয়দিন পর ঘটনাটি ঘটে। ইউক্রেনের পালটা আক্রমণ বিলম্বিত করার প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে এ অভিযোগ উঠে আসে।

আবারও এ অভিযোগ অস্বীকার করে রুশরা। উভয় পক্ষই একে অপরকে ধ্বংসের জন্য দায়ী করছে।

ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র ভ্যালেরি শেরশেন বলেন, মোকরি ইয়ারি বরাবর উজানের বাঁধটি দখলদার বাহিনী উড়িয়ে দিয়েছে। যার ফলে উভয় তীরে বন্যা হয়েছে। ইউক্রেনস্কা প্রাভদা সংবাদ সংস্থাকে এ কথা জানান।

আরও জানায়, ‘ইউক্রেনের পালটা আক্রমণকে ধীর করতেই বাঁধটি উড়িয়ে দেয় রুশরা।’ তবে তিনি দাবি করেন তারা এই প্রচেষ্টায় ব্যর্থ হয়েছে। শেরশেন যোগ করেন, প্রথমে দখলকারীরা কার্লিভকা জলাধার, তারপর কখোভকা বাঁধ, তারপরে তারা জাপোরিঝঝিয়া ওব্লাস্টের অধিকৃত অংশে অন্যান্য জলবিদ্যুৎ সুবিধা উড়িয়ে দেয়।

ইউক্রেনীয় পালটা আক্রমণ অব্যাহত থাকায় ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনীর মোকরি ইয়ারি নদীর উভয় তীরে বিশেষ অগ্রগতি অবহ্যাত করতেই এ নদীর জলবিদ্যুৎ সুবিধা উড়িয়ে দেয় রুশরা। তবে এখন অবধী বাঁধ ধ্বংসের স্বতন্ত্র যাচাই করা হয়নি। এ বাঁধ ধ্বংসে প্রতিরক্ষা বাহিনীর অগ্রগতিতেও কোনো প্রভাব ফেলেনি বলে জানা যায়।

যদিও কখোভকা বাঁধ ও মোকরি ইয়ারি ধ্বংসের জন্য কে দায়ী তা এখনো অস্পষ্ট। তবে ভবিষ্যতে বাঁধ হামলার পেছনে রুশদের হাত প্রমাণিত হলে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) এগুলোকে যুদ্ধাপরাধ হিসাবে বিবেচনা করবে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

পেরুর দক্ষিণাঞ্চলে বাস খাদে পড়ে ২৬ জন নিহত
প্রবল বর্ষণে আফগানিস্তানে ৩৫ জনের প্রাণহানি
পাকিস্তানে সেনানিবাসে ভয়াবহ হামলা, ৮ সেনা নিহত
প্যারিসে ‘রৌদ্র ছায়ায় কবি কণ্ঠে কাব্য কথা’ শীর্ষক আড্ডা
ইসরায়েলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলায় নিহত ৭১ ফিলিস্তিনি
যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার মধ্যে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র উত্তেজনা: ফোনালাপে সমাধানের চেষ্টা

আরও খবর